মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ১২:২৩ পূর্বাহ্ন

প্রথমবার শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে মুখোমুখি অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট : রবিবার, ১৪ নভেম্বর ২০২১, ১১:০৯ am

প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের লক্ষ্য নিয়ে আজ (১৪ নভেম্বর) মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড। ট্রান্স-তাসমান এই ফাইনালটি দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে শুরু হবে রাত ৮টায়। অজিদের প্রথম টি-টোয়েন্টি শিরোপার বিপরীতে প্রথম আইসিসি শিরোপার আশা কিউইদের। সবকিছু ছাপিয়ে ভক্ত-সমর্থকদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু অবশ্য টস।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে অস্ট্রেলিয়াকে ফেভারিটের কাতারে রাখেননি বেশির ভাগ ক্রিকেটবোদ্ধা। কারণ, এ বছরে তিনটি সিরিজে বাজে খেলে হেরেছে ফিঞ্চবাহিনী। কিন্তু সব ধারণা পাল্টে দিয়ে, শিরোপার হাতছোঁয়া দূরত্বে অজিরা।

সুপার টুয়েলভে ইংল্যান্ডের কাছে হারের ধাক্কা সামলে, সেমিফাইনালে অপরাজিত পাকিস্তানকে বিদায় করে দিয়েছে অজিরা। চাপ সামলে শেষবেলায় ফল তুলে নেওয়ার নজির দেখিয়ে ব্যাটিং গভীরতার পরিচয় দিয়েছেন স্টয়নিস ও ম্যাথু ওয়েড। চেনা প্রতিপক্ষের বিপক্ষে শিরোপার লড়াইতে তাই আত্মবিশ্বাসী অস্ট্রেলিয়া। ডেভিড ওয়ার্নারের ফর্মে ফেরার সঙ্গে পাওয়ার প্লেতে আসরের সর্বোচ্চ রান তোলার কীর্তি সঙ্গী অজিদের। মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিনসের ডেথ ওভারে পারদর্শিতার পাশাপাশি, স্পিনে ভরসার জায়গা সুপার টুয়েলভে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি অ্যাডাম জাম্পা। প্রথম শিরোপার স্বপ্ন এবার বাস্তবে রূপ দেওয়ার অপেক্ষায়।

গেলো সাত বছরে ক্রিকেটে সবচেয়ে ধারাবাহিক দলের নাম নিউজিল্যান্ড। ২০১৫ ও ১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপে ফাইনালের পর, এবার টি-টোয়েন্টি শিরোপা লড়াইতেও জায়গা করে নিয়েছে কিউইরা।

সুপার টুয়েলভে পাকিস্তানের কাছে হারলেও, ব্যাট-বলে নিজেদের সেরা প্রমাণ করেই সেমিতে ইংল্যান্ডকে বিদায় করেছে ব্ল্যাক-ক্যাপসরা। যদিও উদ্বোধনীতে আসরজুড়েই ভুগেছে। ড্যারিল মিচেলের ফর্মের সঙ্গে বড় ম্যাচের খেলোয়াড় গাপটিলে, ফাইনালে সেটা কাটিয়ে ওঠার আশা কিউইদের। ইনজুরিতে কনওয়ের ছিটকে যাওয়া বড় ধাক্কা নিউজিল্যান্ডের জন্য। তাই সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে হবে, দলপতি ও স্কিল হিটার কেন উইলিয়ামসনকে। ফিলিপস-নিশামে ফিনিশিং আস্থা আর স্পিনে ইশ সোধী নির্ভরতা। সাউদি-বোল্টের সুইংয়ের সঙ্গে মিলনের পেস প্রতিপক্ষকে বিপদে ফেলতে পারে। ফেব্রুয়ারিতে অজিদের বিপক্ষে সিরিজ জয় থেকেও অনুপ্রেরণা নিচ্ছে কিউইরা।

এতকিছুর পরও বড় ভূমিকা নিতে পারে টস। দুবাইতে ফ্লাড লাইটে খেলা সবশেষ ১৭ ম্যাচের ১৬টিতেই জিতেছে পরে ব্যাটিং করা দল।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © 2017 AjKaal24.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com