মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০২:০৬ পূর্বাহ্ন

চার্ট দেখে ভাড়া, সিটিং সার্ভিস বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপডেট : বুধবার, ১০ নভেম্বর ২০২১, ৪:১১ pm

আগামী তিন দিনের মধ্যে সিটিং সার্ভিস বন্ধ করে দেওয়া হবে। গাড়িতে ভাড়ার চার্ট ঝুলিয়ে দেওয়া হবে। চার্ট অনুযায়ী ভাড়া আদায় করতে হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েতুল্লাহ।

বুধবার (১০ নভেম্বর) ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির কার্যালয়ে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন তিনি। বাস ভাড়া পুনর্নির্ধারণ ও বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন এই প্রেস ব্রিফিংয়ে আয়োজন করে।

খন্দকার এনায়েতুল্লাহ বলেন, ডিজেলের দাম বাড়ায় বাস ভাড়া ভাড়ানোর প্রয়োজন ছিল। তবে জনগণের যেন কষ্ট না হয় সেকথা মাথায় রেখে বিআরটিএ এবং সরকারের সঙ্গে বৈঠক করেছি। তারা যতটুকু বাড়াতে বলেছ আমরা ততটুকুই বাড়িয়েছি। আমরা অতিরিক্ত বাস ভাড়া বৃদ্ধি করেছি বলে যে অভিযোগ উঠেছে তা ঠিক নয়।

তিনি বলেন, অনেক দিন ধরে অভিযোগ রয়েছে সিটিং ও গেটলক সার্ভিসের নামে জনগণের কাছ থেকে বেশি বাড়া আদায় করা হচ্ছে। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি সিটিং সার্ভিস বন্ধ করে দেওয়ার। আগামী তিনদিনের মধ্যে কোন সিটিং সার্ভিস থাকবে না। তিনদিন পর কেউ যদি সিটিং সার্ভিস চলমান রাখে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব‍্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বলেন, ঢাকা মেট্রো এলাকায় চলাচলকারী ১২০টি পরিবহন কোম্পানির মধ্যে ১৩টি কোম্পানিতে সিএনজিচালিত গাড়ি পাওয়া গেছে। সিএনজিচালিত গাড়ির মোট সংখ্যা ১৯৬টি। আমরা এখনো অনুসন্ধান করে যাচ্ছি। এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে তবে সেটা ২০-২৫টার বেশি হবে না।

খন্দকার এনায়েতুল্লা জানান, ভাড়া মনিটরিংয়ের জন‍্য কাল থেকে বিআরটিএ এবং ডিএমপির ম্যাজিস্ট্রেটরা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করবে। তাদের সহযোগিতার জন্য মালিক সমিতির পক্ষ থেকে ১১টি ভিজিল্যান্স টিম মাঠে থাকবে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী বলেন, আগামীকাল থেকে কোন বাস ভাড়ার চার্ট ছাড়া রাস্তায় চলাচল করলে ভ্রাম্যমাণ আদালত যদি জরিমানা করে তাহলে ফেডারেশনের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিবাদ করা হবে না।

ভাড়া বাড়ল শ্রমিকদের মজুরি পাচ্ছে না দাবি করে তিনি বলেন, ভাড়া বাড়লেও মজুরি বাড়ছে না শ্রমিকদের। ভাড়া নিয়ে যাত্রীদের সঙ্গে শ্রমিকদের বাকবিতণ্ডা হচ্ছে মালিকদের কারো সঙ্গে নয়। গত আড়াই বছরে সড়ক দুর্ঘটনায় ২৯৮ জন ড্রাইভারের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান তিনি।

এসময় সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি ও সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © 2017 AjKaal24.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com