বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০৫:৫৩ অপরাহ্ন

যে কারণে হচ্ছে স্পিডবোট দুর্ঘটনা, সমস্যা সমাধান হবে কী?

ডেস্ক প্রতিবেদন:
  • আপডেট : শনিবার, ৮ মে, ২০২১

মাদারীপুরের বাংলাবাজার ও মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া নৌ পথে স্পিডবোটে অতিরিক্ত যাত্রী, নেই কোনও রেজিস্ট্রেশন, অদক্ষ চালক, বাড়তি ভাড়া, কর্তৃপক্ষের এমন অব্যবস্থাপনার মধ্য দিয়ে যাত্রী বোঝাই করে চলাচল করছে স্পিডবোট। ফলে প্রায়ই ঘটছে ছোট বড় দুর্ঘটনা। সম্প্রতি এই নৌ রুটে স্পিডবোট দুর্ঘটনায় ২৬ জন নিহতের পর ঘুরে দাঁড়িয়েছে প্রশাসন। গঠন করা হয়েছে তদন্ত কমিটি। তবে সমস্যা সমাধানে আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন।

সরেজমিনে দেখা যায়, বাংলাবাজার শিমুলিয়া নৌ পথে অন্যান্য নৌযান থাকলেও সময় বাঁচাতে এই নৌ পথ ব্যবহারকারীদের কাছে পছন্দের প্রথম তালিকায় রয়েছে স্পিডবোট। আর এই সুযোগে কোনও প্রকার নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে অদক্ষ চালক, বাড়তি ভাড়া, অতিরিক্ত যাত্রীবহন করাসহ বিভিন্ন অনিয়মের মধ্য দিয়েই দিনের পর দিন স্পিডবোট দিয়ে যাত্রী পারাপার করে আসছে কর্তৃপক্ষ।

তবে গেল ৩ মার্চ স্পিডবোট দুর্ঘটনায় ২৬ জন যাত্রী নিহতের পরে ঘুরে দাঁড়িয়েছে প্রশাসন। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে গঠন করা হয়েছে ৬ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি। খতিয়ে দেখা হচ্ছে এ ঘটনার সঙ্গে কারা জড়িত। এ ঘটনার তদন্ত ছাড়াও নৌ পথের সকল অনিয়ম প্রতিরোধে কাজ করছে প্রশাসন। সমস্যা সমাধানে আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন।

এদিকে সরকারের উন্নয়ন কাজে পদ্মা নদীর বিভিন্ন স্থানে চায়না ড্রেজারসহ ব্যক্তিমালিকানা একাধিক ড্রেজার ও বাল্কহেড চলাচল করছে বাংলাবাজার শিমুলিয়া নৌ রুটে। ঠিক সেই ঝুঁকিপূর্ণ রুটটি দিয়েই অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই করে প্রশিক্ষণহীন, অদক্ষ এসব স্পিডবোটের চালকরা মালিক পক্ষের নির্দেশে সরকারের নিষেধাজ্ঞাকালেও অনায়াসেই প্রশাসনের চোখের সামনেই যাত্রী পারাপার করছে। ফলে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। এসব দুর্ঘটনার জন্য অদক্ষ ড্রাইভার, অতিরিক্ত যাত্রীসহ, প্রশাসনের একটি অংশ দায়ী বলে মনে করেন এই নৌ রুটে চলাচলকারীরা।

অন্যদিকে স্পিডবোটের গায়ে যাত্রীদের আসন সংখ্যা লেখা না থাকায় বাড়তি ভাড়া দিয়েও বোটে অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে দুর্ঘটনায় পড়ছেন অনেকে। বোটের গায়ে যাত্রীদের আসন সংখ্যা লেখারও দাবী যাত্রীদের।

সম্প্রতি এই নৌ রুটের স্পিডবোট দুর্ঘটনার দায়ভার শিমুলিয়া ঘাটের ইজারাদার ও প্রশাসন কোনোভাবেই এড়াতে পারে না বলেন মন্তব্য করেছেন মাদারীপুরের বাংলাবাজার স্পিডবোটে ঘাটের সভাপতি হাজী দেলোয়ার হাওলাদার।

তিনি বলেন, দুর্ঘটনা কবলিত স্পিডবোটটি শিমুলিয়া ঘাট থেকে যাত্রী নিয়ে ছেড়ে এসেছে। প্রশিক্ষণহীন চালক দ্বারাই চলছে এই নৌ রুটের স্পিডবোটগুলো। চালকদের প্রশিক্ষণ দিতে গিয়ে মন্ত্রণালয়ে একাধিক বার কাগজপত্র জমা দেয়ার পরে তা করতে পারিনি। এই দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ অদক্ষ ড্রাইভার দিয়ে বোট পরিচালনা করা। তবে কোনও প্রকারে আমাদের এপার থেকে অতিরিক্ত যাত্রী নেয়া হয় না।

শিবচর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসাদুজ্জামন বলেন, চালকদের বয়স ও ডোপ টেস্ট করাসহ প্রত্যেকটি স্পিডবোটটি অতিরিক্ত যাত্রী নেয়া বন্ধে নির্ধারিত আসন বসানো সুপারিশসহ নৌ পথে অনিয়ম রোধে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে জানানো। কোন প্রকার অদক্ষ চালক দিয়ে স্পিডবোট চলতে দেয়া হবে না।

এদিকে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাট এলাকার ৩৯টি স্পিডবোট থাকলেও বর্তমানে এই নৌ পথে প্রায় দেড় শতাধিক স্পিডবোট চলাচল করছে।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © 2017 AjKaal24.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com