শুক্রবার, ১৭ মে ২০১৯, ০৫:৩২ অপরাহ্ন

মদিনা মসজিদে নববীর পাশে প্রবাসীর মানবেতর জীবন

মদিনা মসজিদে নববীর পাশে প্রবাসীর মানবেতর জীবন

আজকাল ডেস্ক:
প্রবাসী সুমন পঙ্গুত্ব নিয়ে দীর্ঘ ছয় মাস ধরে মদিনায় মসজিদে নববীর ১০নং টয়লেটের পাশে খোলা আকাশের নিচে অনাহারে অর্ধাহারে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

অর্থাভাবে চিকিৎসা নিতে না পারায় শরীরের অক্ষমতা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। দেশেও ফিরে যেতে পারছেন না অসহায় সুমন।

তিনি জানান, জীবিকার তাগিদে ১১ মাস আগে ফ্রি ভিসায় সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে আসেন তিনি। তিন মাস পর আকামা হাতে পেয়ে কর্মের সন্ধানে মদিনায় গিয়ে একটি আবাসিক হোটেলে কাজ পান। সেখানে কয়েক দিন কাজ করার পর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে কর্মস্থল থেকে বের করে দেয় কর্তৃপক্ষ। সেই থেকে বিনা চিকিৎসায় দিন পার করছেন তিনি।

মদিনার কয়েকজন প্রবাসীর পরামর্শে মদিনা বাংলাদেশ হজ মিশনে হাজীদের চিকিৎসাসেবায় নিয়োজিত চিকিৎসক দলের কাছে আবেদন করেও চিকিৎসাসেবা ও ওষুধ পাননি সুমন। পরে জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কস্যুলেটের শ্রম উইং এ যোগাযোগ করে কোনো সহায়তা না পেয়ে সাধারণ প্রবাসীদের কাছে সাহায্যের হাত বাড়ান।

সুমনকে দেশে পাঠাতে প্রবাসীরা তার কফিলের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি তিন হাজার রিয়াল দাবি করেন। এক মিসরীয় ও আরেক বাংলাদেশি আড়াই হাজার রিয়াল ব্যবস্থা করে পাঠালে কফিল তাকে দেশে যাওয়ার জন্য এক্সিট/রি এন্ট্রি দিতে রাজি হন। তাকে দেশে পাঠাতে বিমানের টিকিট ব্যবস্থা করার আগ্রহ জানিয়েছেন মদিনার আরও কয়েকজন প্রবাসী বাংলাদেশি।

বাংলাদেশ সরকারের কাছে চিকিৎসা সহায়তা ও দেশে ফেরার জন্য আবেদন জানিয়েছেন সুমন আলী। তিনি বলেন, যে কোনোভাবে দেশে ফিরতে চাই, পরিবারের জন্য বাঁচতে চাই।

জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে অতিরিক্ত ব্যথাই যন্ত্রণায় দিনে দিনে শারীরিক অবনতি হচ্ছে। তার- দুটি পা পঙ্গু হয়ে যাচ্ছে।

মদিনা প্রবাসী সংবাদকর্মী দেলোয়ার হোসেন সুমন বলেন, কত প্রবাসী ব্যবসায়ী বিত্তবান ব্যক্তি আছেন কেউ কি পারেন না সুমন আলীকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে।

অসহায় সুমন আলী জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ি উপজেলার পুঁথিয়ারপুর ইউনিয়নের ভুগারপাড়া গ্রামের মাউসের আলীর ছেলে।


© All rights reserved © 2017 AjKaal24.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com