রবিবার, ৩১ মে ২০২০, ১০:২৬ অপরাহ্ন

ব্যাংকে টাকা রাখলে কমবে!

ব্যাংকে টাকা রাখলে কমবে!

সুদের হার নয় ছয় বাস্তবায়ন হলে পুরো আর্থিকখাতে এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ার আশঙ্কা আছে। বিশেষ করে আমনাতের সুদহার কমায় সঞ্চয় হ্রাস পাবে যার সরাসির প্রভাব পড়বে বিনিয়োগে।

মূল্যস্ফীতি বিবেচনায় এই হারে ব্যাংকে আমনাত রাখলে লাভতো হবেই না উল্টো বছর শেষে লোকসানে পড়বেন আমানতকারীরা। তবে অর্থ উপদেষ্টা মসিউর রহমানের দাবি সুদহার কমায় ক্ষতিগ্রস্থ হবেন না আমনতকারীরা।

এপ্রিল থেকে ব্যাংক ঋণে সুদহার ৯ শতাংশ ও আমনাতে ৬ শতাংশ কার্যকরের কথা আছে। ঋণের সুদহার কমানোর ঘোষণায় শিল্প উদ্যোক্তারা স্বস্তি পেলেও আমানতকারীরা অসন্তুষ্ট।

একদিকে পুঁজিবাজারে অস্থিরতা অন্যদিকে সঞ্চয়পত্র কেনায় কড়াকড়ি এমন বাস্তবতায় সঞ্চয়ের অর্থ নিয়ে কোথায় যাবেন আমানতকারীরা?

ব্র্যাক ব্যাংকের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন জানান, ‘আসলেই ছোট আমানতকারীরা নিরুৎসাহিত হবে।’

পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে ডিসেম্বর শেষে সার্বিক মূল্যস্ফীতি ছিল ৫.৭৫ শতাংশ। এই ধারা অব্যাহত থাকলে এপ্রিলে এসে আমানতের সুদহার ৬ শতাংশ থেকে মূল্যস্ফীতি বাদ দিলে একজন আমনাতকারীর প্রকৃত সুদ শুন্য কিংবা ঋণাত্মক হয়ে যাবে। অর্থাৎ ব্যাংকে টাকা রেখে লাভ নয় বরং হবে লোকসান।

প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান বলেন, ‘আমানতের সুদের হার কমালে খুব ক্ষতি হবে না। মূল্যস্ফীতি বিবেচনায় সুদের একশতাংশ বেশি থাকবে।’

অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) সাবেক সভাপতি নুরুল আমিন জানান, ‘ছোট আমানতকারীরা ব্যাংকে টাকা রাখার আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। এর প্রভাবে আমানত ঘাটতিতে পড়তে পারে ব্যাংকগুলো।’

তিনি আরও বলেন, ‘সুদের হার বাস্তবায়নে চাপ না দিয়ে বরং তা বাজারের ওপর ছেড়ে দেয়াই অর্থনীতির জন্য ইতিবাচক হবে।’


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Add

© All rights reserved © 2017 AjKaal24.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com