রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১:৪২ অপরাহ্ন

বিশেষ বিজ্ঞপ্তি :

নিউজ পোর্টাল ও আইপি টেলিভিশন  আজকাল২৪.কম-এ ঢাকা সিটির প্রতি থানা ও সারেদেশে "রিপোর্টার/সংবাদদাতা" নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন aajkaalbd@gmail.com

ফুটফুটে শিশুটি বড় হবে কার পরিচয়ে?

ফুটফুটে শিশুটি বড় হবে কার পরিচয়ে?

ছেলে সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়ে দিশেহারা প্রতিবন্ধী যুবতি ও তার পরিবার। মধ্য বয়সী হাসান আলীর লোলুপ দৃষ্টির ফসল এই ফুটফুটে শিশুটি। একদিকে দারিদ্র্যতা অন্যদিকে পিতৃপরিচয়হীন শিশুটি। হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে দৈবিক সহযোগিতা কামনা ছাড়া অন্য কোনও উপায় নেই অসহায় এ পরিবারের হাতে।

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার মিনাপাড়া গ্রামের পিতৃহীন প্রতিবন্ধী যুবতি নানার ভিটায় বসবাস করেন। তার বয়স এখন পঁচিশ। অসহায় এ যুবতীর দিকে লোলুপ দৃষ্টি পড়ে একই গ্রামের চার সন্তানের জনক হাসান আলীর। শুরু হয় নানাভাবে বিরক্ত। পরিশেষে ধর্ষণের শিকার হন প্রতিবন্ধী। গর্ভবতী যুবতিকে নিয়ে শুরু হয় হাসান আলীর টালবাহানা। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে তার চেষ্টার কমতি ছিল না। পেশিশক্তির বলে প্রতিবন্ধীর পরিবারকে দমিয়ে রাখার চেষ্টা করা হয়। সময় গড়ানোর সঙ্গে যুবতির শারীরিক অবস্থা বদলাতে থাকে। শেষ পর্যন্ত মামলার আশ্রয় নেয় তার পরিবার। এর প্রেক্ষিতে হাসান আলী গ্রেপ্তার হলেও জামিনে মুক্তি পান।

গেল বুধবার বিকেলে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ফুটফুটে শিশু পুত্রের জন্ম দেন ওই প্রতিবন্ধী যুবতি। তবে খোঁজ-খবর নেওয়ার কেউ নেই।

গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রসূতি ও গাইনি ওয়ার্ড ইনচার্জ সীমা মণ্ডল বলেন, নরমাল ডেলিভারি হয়েছে। বর্তমানে মা ও শিশুটি সুস্থ আছে।

প্রতিবন্ধী যুবতির মা জানান, সাত বছর আগে তাকে রেখে বাবা মারা যায়। মেয়ের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে তিনি গ্রামের এক ব্যক্তিকে বিয়ে করেন। সে সংসার থেকেই মেয়ের দেখাশোনা করতেন। ধর্ষণের পর নানাভাবে চেষ্টা করেও হাসান আলীর সঙ্গে মীমাংসা হয়নি। তাই আইনের আশ্রয় নেয়া। কিন্তু জামিনে মুক্তি পেয়ে হাসান আলী হুমকি অব্যাহত রেখেছে। তাই নবজাতককে নিয়ে এখন কি করবেন তা ভেবে পাচ্ছেন না।

এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শিশুটিকে দেখতে আসেন গাংনীর সুধী সমাজের অনেকেই। অসহায় এ পরিবারের পাশে দাঁড়াতে সকলের সহযোগিতা চাইলেন তারা।

সুধী সমাজের প্রতিনিধি জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি একেএম শফিকুল আলম বলেন, আগে শিশুটির পিতৃপরিচয় নিশ্চিত করা হবে। তাহলে সব সমস্যার সমাধান হবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 AjKaal24.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com