রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:৩৭ অপরাহ্ন

এখনও যাত্রীদের থেকে নেয়া হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া

এখনও যাত্রীদের থেকে নেয়া হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া

ঈদ শেষ হলেও কুড়িগ্রামে যাত্রীদের কাছ থেকে চলছে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়। নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে তিন গুণ বেশি ভাড়া আদায় করছে যানবাহন কর্তৃপক্ষ।

বাস মালিক-শ্রমিকদের কাছে এক প্রকার জিম্মি হয়ে পরেছে ভুক্তভোগী সাধারণ যাত্রীরা। টিকিট সংকট অজুহাতে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ৩০০ থেকে ১০০০ টাকা নেয়া হচ্ছে।

এ হিসেবে দিনে প্রায় ৪০ লাখ টাকা বাড়তি আদায় করছে দূরপাল্লার প্রায় দুই শতাধিক বাস। গত এক সপ্তাহে যার পরিমাণ দাঁড়ায় দুই কোটি ৮০ লাখ টাকা।

যাত্রীদের এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত দুইতিন দূরপাল্লার আটটি বাসে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৯৬ হাজার তিনশ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। প্রশাসনের এ ধরনের পদক্ষেপে খুশি যাত্রীসহ সাধারণ মানুষ।

গেল রোববার দিনগত রাতে কুড়িগ্রাম শহরের জেলা পরিষদ সুপার মার্কেট ও ঘোষপাড়া এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার সুদীপ্ত কুমার সিংহ, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিন্টু বিকাশ চাকমা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাসিবুল হাসান মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন।

অভিযান পরিচালনাকালে পুলিশ, বিআরটিএ পরিদর্শক মাহবুবার রহমান, কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাডভোকেট আহসান হাবীব নীলু, স্যানিটারি ইন্সপেক্টর জহুরুল ইসলামসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুসন্ধানে জানা যায়, কুড়িগ্রাম থেকে ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশালসহ বিভিন্ন রুটে দিনে-রাতে মিলিয়ে প্রায় দেড়শটি দূরপাল্লার বাস যাতায়াত করে।

ঈদ উপলক্ষে অতিরিক্ত আরও অর্ধশতাধিক দূরপাল্লার যানবাহন যাত্রী পরিবহন করছে। গড়ে দুইশটি যাত্রীবাহী বাসে ৪০জন যাত্রী হিসেবে আট হাজার যাত্রী ঈদের ছুটি শেষে নিজ নিজ কর্মস্থলে ফিরছে।

এ সময় যানবাহনগুলো থেকে নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে প্রতিটি টিকিটে কমপক্ষে বাড়তি ৫০০ টাকা করে আদায় করছে। এই হিসেবে দিনে ভাড়ার চেয়ে অতিরিক্ত অর্থ আদায় হচ্ছে কমপক্ষে ৪০ লাখ টাকা। এই হিসেবে ঈদের পরদিন থেকে রোববার পর্যন্ত এক সপ্তাহে বাড়তি ভাড়া হিসেবে প্রায় দুই কোটি ৮০ লাখ টাকা লুটে নিল।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাসিবুল হাসান জানান, দূরপাল্লার যাত্রীবাহী বাসে অভিযান চালিয়ে দেখা যায় টিকিট প্রতি অতিরিক্ত ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা আদায় করা হয়েছে। এজন্য আটটি বাসে জরিমানা আদায় করা হয় ৯৫ হাজার টাকা এবং এই বাসের দুই ড্রাইভারকে ত্রুটিপূর্ণ লাইসেন্সের কারণে আরও এক হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

জেলা মটর মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান বকসী জানান, কুড়িগ্রাম থেকে প্রতিদিন প্রায় দেড় শতাধিক দূরপাল্লার বাসযাত্রী পরিবহন করছে। ঈদ উপলক্ষে বাইরে থেকে আরও অনেক বাস যাতায়াত করছে। এসব দূরপাল্লার যাত্রীবাহী বাসে কমপক্ষে ৬০ শতাংশের রুট পারমিট নেই।

জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি একেএম সামিউল হক নান্টু জানান, এনা পরিবহনে এসি বাসে টিকিট মূল্য এক হাজার ৪০০ টাকা হলেও তার কাছ থেকে দুই হাজার টাকা আদায় করা হয়েছে।

সিনিয়র তথ্য অফিসার নুরন্নবী খন্দকার বাবলা একই অভিযোগ করে বলেন, তার দুটি টিকেটে অতিরিক্ত এক হাজার ২০০ টাকা দিতে হয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 AjKaal24.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com