শনিবার, ০৯ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৫২ অপরাহ্ন

Notice :
নিউজ পোর্টাল ও আইপি টেলিভিশন আজকাল২৪.কম-এ ঢাকা সিটির প্রতি থানা ও সারেদেশে "সংবাদদাতা" নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন aajkaalbd@gmail.com
লিবিয়া-অভিবাসী কেন্দ্রে বিমান হামলা

লিবিয়া-অভিবাসী কেন্দ্রে বিমান হামলা

লিবিয়ার একটি অভিবাসী কেন্দ্রে বিমান হামলায় এ পর্যন্ত অন্তত ৪০ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে একাধিক সূত্র বলছে, নিহতের সংখ্যা অর্ধশতাধিক। এই হামলায় আহত হয়েছে আরও কমপক্ষে ৮০ জন।

রাজধানী ত্রিপোলির পূর্বাঞ্চলীয় মফস্বল এলাকা তাজৌরাতে বিমান হামলার ভয়াবহ বিস্ফোরণে এ হতাহতের ঘটনাটি ঘটে। নিহতদের বেশিরভাগই আফ্রিকান অভিবাসী বলে সংশ্লিষ্টদের বরাতে জানিয়েছে বিবিসি।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে লিবিয়া ইউরোপ যেতে ইচ্ছুক বিভিন্ন দেশের অভিবাসীদের অন্যতম প্রধান ঘাঁটিতে পরিণত হয়েছে। লিবিয়া জরুরি সহায়তা কেন্দ্রের মুখপাত্র ওসামা আলী বার্তা সংস্থা এএফপি’কে জানিয়েছেন, তাজৌরাতে যে আবাসিক হ্যাংগারে যুদ্ধবিমান থেকে সরাসরি বোমা হামলা চালানো হয়েছিল সেটিতে ওই মুহূর্তে ১২০ জন অভিবাসী অবস্থান করছিল।

ওসামা আলী জানান, প্রাথমিক পর্যবেক্ষণ থেকে ধারণা করা হচ্ছে ৪০ জন মারা গেছে। কিন্তু নিহতের সংখ্যা আরও বেশি বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

লিবিয়ার জাতিসংঘ সমর্থিত ক্ষমতাসীন দল গভর্নমেন্ট অব ন্যাশনাল অ্যাকর্ড (জিএনএ) বিদ্রোহী লিবিয়ান ন্যাশনাল আর্মি (এলএনএ)-কে বুধবারের হামলার জন্য দায়ী করেছে।

প্রধানমন্ত্রী ফায়েজ আল-সেরার নেতৃত্বাধীন জিএনএ সরকার আন্তর্জাতিকভাবে লিবিয়ার সরকার হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। সেই সরকার এবং তাকে সমর্থনকারী বাহিনীগুলোর বিরুদ্ধে খলিফা হাফতারের নেতৃত্বে এলএনএ বিভিন্ন এলাকায় যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে।

বুধবার যে এলাকায় হামরা হয়েছে সেখানেও চলছে জিএনএ-এলএনএ যুদ্ধ।

সোমবারই এলএনএ ঘোষণা দিয়েছিল, যুদ্ধের প্রচলিত পদ্ধতিগুলো এখন আর কাজে লাগছে না। তাই তারা এখন থেকে ত্রিপোলির বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুতে ভারী বিমান হামলা করবে।

অবশ্য বুধবারের হামলার দায় অস্বীকার করেছেন এলএনএ’র এক মুখপাত্র।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 AjKaal24.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com