রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯, ০৮:১৩ পূর্বাহ্ন

ওসি মোয়াজ্জেম পালিয়েছে: পুলিশ

ওসি মোয়াজ্জেম পালিয়েছে: পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির ১৫ দিন পার হলেও এখনও আটক করা যায়নি ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে।

পুলিশ বলছে, ওসি মোয়াজ্জেম পালিয়েছে। অথচ পরোয়ানা মাথায় নিয়ে হাইকোর্টে আগাম জামিনের আবেদনও করেন তিনি। পুলিশ সদর দপ্তর ও পিবিআইতে হাজিরা দেয়ার পর আর কর্মস্থল রংপুরে ফেরেননি তিনি। ওসি মোয়াজ্জেমের পালিয়ে যাওয়ার খবরে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে মামলার বাদি।

ফেনীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাতকে আগুনে পুড়িয়ে দেয়ার পর থেকেই সোনাগাজী থানার ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে দায়িত্বে অবহেলা ও ঘটনা ভিন্ন খাতে নেয়ার অভিযোগ ওঠে। সেই অভিযোগ আমলে নিয়ে প্রত্যাহার করা হয় ওসিকে। পুলিশ সদর দপ্তরের তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় সাময়িক বরখাস্ত করা হয় তাকে।

এদিকে, নুসরাতকে আপত্তিকর প্রশ্ন করে সেই জবানবন্দির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন এক আইনজীবী। সাইবার ক্রাইম ট্রাইবুনাল মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব দেয় পিবিআইকে।

প্রায় দেড় মাস তদন্তের পর ওসি মোয়াজ্জেমকে অভিযুক্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা। এরপরই তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে আদালত। পরোয়ানা জারির ১৫দিন পার হতে চললেও এখনও গ্রেফতার করা হয়নি তাকে। পরোয়ানা পাওয়া না পাওয়া নিয়ে লুকোচুরির পর পুলিশ এখন বলছে ওসি মোয়াজ্জেমকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

সাময়িক বরখাস্ত করার পর তাকে রংপুর রেঞ্জে সংযুক্ত করা হয়। গতমাসে পুলিশ সদর দপ্তর ও পিবিআইতে হাজিরা দেয়ার কথা বলে ঢাকায় এসে আর কর্মস্থলে ফেরেননি তিনি। তবে শিগগিরি তাকে গ্রেফতার করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ সদর দপ্তর।

আদালতের পরোয়ানার পরও ওসি মোয়াজ্জেম গ্রেফতার না হওয়ায় ক্ষোভ জানান মামলার বাদি।

ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর জানান, অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার ১৫ বছরের জেল হতে পারে। আর আজীবনের জন্য চাকরি হারাবেন তিনি।

দায়িত্বশীল পদে থাকা এই কর্মকর্তার আচরণ পুলিশ বাহিনীর ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছে বলেও মনে করেন তিনি।


© All rights reserved © 2017 AjKaal24.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com