রবিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৯, ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন

হামলার প্রতিবাদে অনশনে ছাত্রলীগের পদ বঞ্চিতরা

হামলার প্রতিবাদে অনশনে ছাত্রলীগের পদ বঞ্চিতরা

ফের হামলার বিচারের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনশন বসেছেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত ও প্রত্যাশিত পদ না পাওয়া নেতা-কর্মীরা। তবে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

গতরাত পৌনে ২টার দিকে পদবঞ্চিতদের সঙ্গে টিএসসিতে আলোচনায় বসেন ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীসহ অন্যান্যরা।

পদবঞ্চিতদের অভিযোগ, নতুন কমিটিতে বিতর্কিতদের বাদ দেয়া এবং মধুর ক্যান্টিনে হামলার ঘটনা নিয়ে আলোচনার এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এর জেরে গোলাম রাব্বানীর কর্মীরা তাদের কয়েকজনকে মারধর করেন। তবে, মারধরের কথা অস্বীকার করেছেন গোলাম রাব্বানী। এ বিষয়ে আজ সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানান তিনি।

কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী আরও বলেন, ‘পদ প্রাপ্ত এবং পদ প্রত্যাশীদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়েছিল। কোন হামলার ঘটনা ঘটেনি। আমরা ঠেকিয়ে দিয়েছি। তারা এটাকে ইস্যু তৈরী করছে। বিশেষ গোষ্ঠী দ্বারা প্রভাবিত হয়ে বার বার একই ঘটনা ঘটানো হচ্ছে।’

সম্মেলনের ১ বছর পর সোমবার ঘোষণা করা হয় ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি। এর আগে ১৫ দফা সময় দিয়েও তা ঘোষণা করা হয়নি। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে সর্বশেষ কমিটির গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা অর্ধশত নেতার বাদ পড়া ও প্রত্যাশিত অনেকের পদ না পাওয়ায় শুরু হয় দ্বন্ধ। তারই জের ধরে চলছে আন্দোলন।

সোমবার সন্ধায় ৬০ থেকে ৭০ জন পদবঞ্চিত নেতা–কর্মী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করেন। তারা মিছিল নিয়ে মধুর ক্যানটিনে যান সংবাদ সম্মেলন করতে। এ সময় হামলার শিকার হন পদবঞ্চিতরা। হামলার ঘটনায় ১০ থেকে ১২ জন আহত হন। তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে কমিটিতে থাকা বিতর্কিতদের বাদ দেয়ার দাবিতে আন্দোলনে নামেন তারা।

বৃহস্পতিবার বিতর্কিত ৯৯ নেতার নাম প্রকাশ করেন আন্দোলনরত নেতারা। রাতে আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানকের কাছে তথ্য-উপাত্তসহ তালিকা জমা দেন। সেখানে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে মোবাইল ফোনে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা কথা বলেন। এ সময় নানক তাদের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীকে জানান।

এর আগে বুধবার মধ্যরাতে নবগঠিত কমিটির ১৭ বিতর্কিত ও বিভিন্ন অপরাধ-অপকর্মে অভিযুক্তর নাম প্রকাশ করে ছাত্রলীগ। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রমাণ সাপেক্ষে তাদের বহিষ্কার করে কমিটিতে বঞ্চিতদের স্থান করে দেয়ার ঘোষণা দেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। কিন্তু শুক্রবারও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কিছুই বলা হয়নি।

গত বছরের ১১ ও ১২ মে ছাত্রলীগের জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনের প্রায় আড়াই মাস পর ৩১ জুলাই রেজওয়ানুল হক চৌধুরীকে সভাপতি ও গোলাম রাব্বানীকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করে আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। কেন্দ্রীয় কমিটির অন্য পদগুলো ছিল ফাঁকা। গেল সোমবার বিকেলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করার পরই ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে শুরু হয় দ্বন্ধ।


© All rights reserved © 2017 AjKaal24.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com